আসুস আজ ভার্চুয়াল ইভেন্টে ঘোষনা করল ইন্টেলের ১১ প্রজন্মের প্রসেসর সহ ল্যাপটপ। জেনবুক ফ্লিপ এস, জেনবুক এস, জেনবুক ১৪, জেনবুক ১৪ আলট্রালাইট, জেনবুক প্রো ১৫ এবং এক্সপার্টবুক বি ৯ – ল্যাপটপ গুলোতে থাকবে এই শক্তিশালী প্রসেসর। মোবাইল ডিভাইসের জন্য তৈরি ইন্টেলের নতুন এই প্রসেসর হবে আরো শক্তিশালী এবং ইন্টিগ্রেটেড আইআরাইএক্স গ্রাফিক্স।

এক নজরে ১১ প্রজন্মের ইন্টেল কোর প্রসেসর সহ আসুস ল্যাপটপ:

আসুস জেনবুক ফ্লিপ এস (UX371)
আলট্রাকম্প্যাক্ট জেনবুক ফ্লিপ এস হ’ল প্রথম আসুস ল্যাপটপ যা ইন্টেল ইভো প্ল্যাটফর্মের ল্যাপটপ হিসেবে তৈরি করা হয়েছে । এটি অনায়াসে বহনযোগ্য, মাত্র ১৩.৯ মিমি পাতলা এবং মাত্র ১.২ কেজি ওজনের। থাকছে ফোরকে ওএলিডি ডিসপ্লে সহ ৩৬০ ডিগ্রি টাচ ডিসপ্লে।

আসুস জেনবুক ফ্লিপ ১৩ (UX363)
মাত্র ১৩.৯ মিমি পাতলা এবং মাত্র ১.৩ কেজি  ওজনের কমপ্যাক্ট জেনবুক ফ্লিপ ১৩ এ থাকবে উচ্চ-ক্ষমতার ব্যাটারি যা ১৪ ঘন্টা পর্যন্ত চলতে সক্ষম।, এতে থাকছে ৬৫ ওয়াটের চার্যার যা ফাস্ট চার্জিং সমর্থন করে। পারফরম্যান্সের জন্য, জেনবুক ফ্লিপ ১৩ থছে ইন্টেল এর ১১ প্রজন্মের কোর আই ৭ প্রসেসর সাথে ইন্টেল আইরিস এক্স ই গ্রাফিক্স এবং ১৬ জিবি র্যাম। স্টোরেজের জন্য, এটি ১ টিবি পিসিআই 3.0 এসএসডি পর্যন্ত সমর্থন করে।

আসুস জেনবুক এস (UX 393)
জেনবুক এস একটি প্রিমিয়াম আল্টরপোর্টেবল ১৩.৯-ইঞ্চি ল্যাপটপ যা একেবারে নতুন ৩:২ অ্যাসপেক্ট-রেশিও ফর্ম ফ্যাক্টর সহ। এটা ১৫.৭ মিমি পাতলা ১.৩৫ কেজি ওজনের কম্প্যাক্ট ল্যাপটপ,যা  3.3K (3300 x 2200) এর চারপাশে নির্মিত হয়েছে ৩:২ রেশিওর টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে। এতেও থাওছে উচ্চ-ক্ষমতা 67 ডাব্লু ব্যাটারি যা জেনবুক এস ল্যাপটপ্টিতে ১২ ঘন্টা চালাতে সক্ষম। থাকছে নম্বরপ্যাড ২.০  ইনফ্রারেড (আইআর) ক্যামেরা সুবিধাসহ শক্তিশালী কনফিগারেশন।

আসুস জেনবুক ১৪ আল্ট্রালাইট (UX435EAL / EGL)
মাত্র ৯৮০গ্রামের জেনবুক ১৪ আল্ট্রালাইট ল্যাপটপে থাকছে ১১ প্রন্মের ইন্টেল প্রসেসর সহ আইয়ারাইএক্স বা এনভিডিয়া গ্রাফিক্সের অপশন।এর বিশেষত্ব হচ্ছে এর হাল্কা ওজন, শক্তিশালী কফিগারেসন সহ এর ৯২% স্ক্রিন টু বডি রেশিও।

আসুস এক্সপার্টবুক  বি ৯
ASUS এক্সপ্রেসবুক B9 এর ওজন মাত্র ৮৮০ গ্রাম। ব্যাবসায়িক কাজে সহজে বহনযোগ্য কিন্তু শক্তিশালী এই ল্যাপটপ এ থাকছে নতুন এই প্রসেসর সহ দুটি এসএস ডি ব্যাবহারের সুবিধা। এছাড়াও এআই সম্বলিত ক্যামেরা যা স্বচ্ছ ভিডিও কনফারেন্স করতে সাহায্য করবে।

আসুস জেনবুক ১৪
জেনবুক 14  একটি সম্পূর্ণ নতুন ল্যাপটপ যা পারফরম্যান্স এবং সৌন্দর্য আর বহনযোগ্যতার দারুন সংযোগ। ১.১৯ কেজির এই ল্যাপটপে ইন্টের ১১ পজন্মের প্রসেসর সহ এনভিডিয়া এমেক্স৪৫০ গ্রাফিক্স।
জেনবুক ক্লাসিক সিরিজের এই সর্বশেষ সংযোজনে এ থাছে দুটি থান্ডারবোল্ট ৪ ইউএসবি-সি, ইউএসবি ৩.২ টাইপ-এ, স্ট্যান্ডার্ড এইচডিএমআই ২.০ , মাইক্রোএসডি কার্ড রিডার এবং একটি অডিও জ্যাক। জেনবুক 14 এর উল্লেখযোগ্য ফিচার এর ৯২% স্ক্রিন-টু-বডি অনুপাত সহ একটি চার দিকের ফ্রেমলেস ন্যানোএডজ ডিসপ্লে।

আসুস ভিভোবুক ফ্লিপ ১৪
ভিভোবুক ফ্লিপ ১৪ হ’ল ৩৬০ ডিগ্রি হিঞ্জ আর স্টাইল যুক্ত ফ্লিপেবল টাচস্ক্রিন ল্যাপটপ যা ট্যাবলেট মোডে ব্যবহার করা যায়। টাচস্ক্রিন এই ল্যাপটপ ।

ASUS জেনবুক ১৩/১৪ (UX325 / UX425)
জেনবুক ক্লাসিক সিরিজের জেনবুক ১৩ (ইউএক্স ৩২৫) এবং জেনবুক ১৪ (ইউএক্স ৪২৫) দুটি নতুন প্রজন্মের ১৩.৩-ইঞ্চি এবং ১৪ ইঞ্চির আল্ট্রাপোর্টেবল ল্যাপটপ। জেনবুক ১৩ এবং জেনবুক ১৪ আগের প্রজন্মের চেয়েও পাতলা এবং হালকা। জেনবুক ১৩ এর ওজন মাত্র ১.০৭ কেজি ৯ এবং উভয় মডেল কেবল ১৩.৯ মিমি পাতলা।

আসুস ভিভোবুক S13 / S14 / S15 (S333 / S433 / S533)
সম্প্রতি দেশে উন্মোচিত হওয়া আসুস ভিভোবুক এস সিরিজ ১৩ ইঞ্চি, ১৪, এবং ১৫ ইঞ্চির ল্যাপটপের গুলো ইতিমধ্যেই দেশের বাজারে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এই ল্যাপটপে আপগ্রেডে আসতে যাচ্ছে সামনের বছর ইন্টেলের ১১ প্রজন্মের প্রসেসর নিয়ে।

আসুসের এই ল্যাপটপ গুলো চলতি বছরের শেষ থেকে বাংলাদেশের বাজারে আসবে।

বন্ধুদের জানিয়ে দেন

আপনার মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here