শাওমি কিছুদিন আগে দেশের বাজারে উন্মোচন করে নতুন ফোন রেডমি নোট ৯ (redmi note 9)। এটি কেনার আগে সিন্ধান্ত নিতে যেন সুবিধা হয় সেজন‍্য  রেডমি নোট ৯ ফোনটি রিভিউ লিখতে বসলাম। আমি গত ১০ দিন ধরে ডিভাইসটি ব‍্যবহার করছি। এই সময়টুকুতে কেমন পারফরমেন্স পেয়েছি, ক‍্যামেরা কোয়ালিটি, ব‍্যাটারি ব‍্যাকআপ ইত‍্যাদি বিষয় নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরব এই রিভিউতে।

ডিজাইন এবং বিল্ড কোয়ালিটি

রেডিম নোট ৯ ফোনের ডিজাইন দেখে প্রথমেই আমার হুয়াওয়ের মেট ২০ ফোনের কথা মাথায় এসেছে। অথাৎ ফোনটির ডিজাইনে হুয়াওয়ের  মেট ২০ ফোনের কিছুটা ছাপ রয়েছে। আমার হাতে থাকা রিভিউ ইউনিটির কালার ছিল ফরেস্ট গ্রীন। সব কিছু মিলিয়ে প্রথম দেখায় বাজারে অনুযায়ী ডিজাইন আমার পছন্দ হয়েছে।

ফোনটির বডি পাস্টিকের তৈরি। দূর থেকে ফোনটির ব‍্যাকপার্টটি দেখলে উজ্বল রঙের কারণে মনে হবে এটি গ্লাসের তৈরি। গ্লাস ব‍্যাক পার্ট না থাকায় কিছুটা কম প্রিমিয়াম মনে হবে ডিভাইসটি। তবে ব‍্যাকপাটে গ্লাস না থাকায় হাতে থেকে পরে গেলে ক্ষতি তূলনামূলক ভাবে কম হবে।

ফোনটি ব‍্যাকপার্টের উপরের অংশ  রয়েছে চতুর্ভুজ আকৃতির ক‍্যামেরা প‍্যানেল। সেখানে ৪ টি ক‍্যামেরা রয়েছে। ডান পাশে রয়েছে ফ্ল‍্যাশ। ক‍্যামেরা অংশের ঠিক নিচে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। সেন্সরের আনলক স্পিড ভালো।

 

ফোনটির ডান পাশে রয়েছে ভলিউম আপ-ডাউন এবং পাওয়ার বাটন। বাম পাশে রয়েছে সিমকার্ড স্লট। সেখানে দুইটি সিম ও মাইক্রো এসডি কার্ড ব‍্যবহার করা যাবে।

ফোনটির নিচের প‍্যানেলে রয়েছে ৩.৫ এমএম হেডফোন জ‍্যাক। টাইপ সি চার্জিং পোর্ট এবং স্পিকার। সেকেন্ডারি নয়েজ ক‍্যান্সেলেশন মাইক্রোফোন ও আইআর সেন্সর। সেন্সরটি এসি ও টিভির রিমোট হিসেবে কাজ করবে। ১৯৯ গ্রাম ওজনের ফোনটির ডাইমেনশন ১৬২.৩×৭৭.২×৮.৯ এমএম।

ফোনটির সাইজ বড় হলেও ব‍্যাকপার্টটি হালকা কার্ভ হওয়ার কারণে সহজে এক হাতে ধরা যায় এবং ভালো একটি গ্রিপ পাওয়া যায়। ঘষা লাগলে দাগ পড়ে যেতে পারে তাই ব‍্যাক কভার ব‍্যবহার করার পরামর্শ থাকলো।

পারফরমেন্স ও গেইমিং

ডিভাইসটিতে প্রসেসর হিসেবে রয়েছে অক্টা কোর ১২ ন‍্যানমিটারের মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫ চিপসেট। সেখানে ২টি ২.০ গিগাহার্টজ ও ৬ টি ১.৮ গিগাহার্টজের কোর রয়েছে। গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে রয়েছে মালি জি৫২ এমসি২ জিপিইউ।

আমার হাতে থাকা রিভিউ ইউনিটটি ৪ গিগাবাইট র‍্যাম ও ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ সংস্করণের। গিকবেঞ্চের সিঙ্গেল কোরে ডিভাইসটি স্কোর ৩৫৮ এবং মাল্টি কোরে স্কোর ১২৯৩।

ডিভাইসটি টানা ১০ দিন আমার প্রাইমারি ডিভাইস হিসেবে ব‍্যবহার করেছি। এক সাথে একাধিক অ‍্যাপ ব‍্যবহার করেছি। ইউটিউব ভিডিও দেখা, গেইম খেলা, প্রচুর মেইল আদান-প্রদান, বই পড়া, পত্রিকা পড়া, ডক ফাইল এডিটিং করাসহ ডে টু ডে প্রায় সবগুলো কাজেই করেছি এই ডিভাইসটি দিয়ে। এতে ডিভাইসটি ব‍্যবহারে তেমন কোন স্লো বা লেগের দেখা পাইনি।

ডিভাইসটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে আছে অ‍্যান্ড্রয়েড ১০ নির্ভর শাওমি নিজস্ব এমআইইউআই ১১।

তবে গেইমিং সেকশনে এসে আমাকে হতাশ করেছে ডিভাইসটি। এই সবচেয়ে জনপ্রিয় গেইম পাবজি খেলতে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে। প্রচুর ফ্রেম ড্রপ লক্ষ‍্য করেছি গেইম খেলার সময়। এক কথায় ডিভাইসটিতে স্মুথভাবে পাবজি খেলা যায় না। প্রচুর ল‍্যাগ করে। দশ মিনিট পাবজি খেলার পরে ডিভাইসটি প্রচন্ড গরম হচ্ছিল।

কল অফ ডিউটি খেলে পাবজি থেকে বেটার পারফরমেন্স পেয়েছি। তবে টেম্পল রান, ফ্রুটস নিঞ্জা, সাবওয়ে সাফারের মত আকারে ছোট ও কম গ্রাফিক্সের গেইমগুলো অনায়াসে খেলা যায়।

ডিসপ্লে

ফোনটিতে রয়েছে আইপিএস এলসিডি ৬.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে। যার রেজুলেশন হলো ১০৮০×২৩৪০ পিক্সেল। পিপিআই ৩৯৫ ডেনসিটি। বাড়তি নিরাপত্তা জন‍্য রয়েছে গরিলা গ্লাস ৫ প্রযুক্তি। ফলে হাত থেকে পরে গেলে সহজে ভেঙ্গে যাবে যাবে না ডিসপ্লে। যা ফোনটি একটি ভালো দিক।

ডিসপ্লের উপরের বাম পাশে রয়েছে ফ্রন্ট ক‍্যামেরা। ক‍্যামেরার চারপাশে হালাকা কালো বর্ডার রয়েছে। তা একটু চোখ লাগে ভালোভাবে তাকালে। তবে সাধারণ ব‍্যবহারের এটি কোন সমস‍্যাই নয়।

ফুলভিউ ডিসপ্লে থাকায় ভিডিও দেখায় ভালো এক্সপেরিয়ান্স দিবে। দিনের আলোতেও দেখতে তেমন কোন অসুবিধা হয় না। মুভি বা ভিডিও দেখায় ভালো ভিউ এঙ্গেল পেয়েছি। বাজেট অনুযায়ী যা ঠিক আছে।

ক‍্যামেরা

এখনকার ফোনগুলোতে সবচেয়ে বেশি ফোকাস করা হয় ক‍্যামেরাকে। শাওমি রেডমি নোট ৯ ফোনটিতে তাই করা হয়েছে। পিছনে রয়েছে ৪ টি ক‍্যামেরা ও এলইডি ফ্ল‍্যাশ। মূল ক‍্যামেরাটি ৪৮ মেগাপিক্সেলের এবং অ‍্যাপাচার এফ/১.৮। রয়েছে একটি এফ/২.২ অ‍্যাপাচারের ৮ মেগাপিক্সেলের  আল্ট্রাওয়াইড ক‍্যামেরা।

 

বাকি দুইটি ক‍্যামরা এফ/২.৪ অ‍্যাপাচারের ২ মেগাপিক্সেলের। একটিতে রয়েছে মাইক্রো আরেকটা ডেপথ সেন্সর রয়েছে ১০৮০পি ভিডিও ৩০এফিএসে শুট করা যায়। তবে নেই ৬০ এফিএসে শুটের ব‍্যবস্থা ও ফোরকে ভিডিও রেকর্ডের সুবিধা।

এই বাজেটের ফোন হিসেবে ক্যামেরার মান বেশ ভালো। দিনের আলোয় ছবির মান খুবই ভালো, বিশেষ করে আলো-ছায়ায় ভরা দৃশ্যের ছবিও এটি সহজেই এইচডিআর ব্যবহার করে মান সম্মতভাবে তুলতে পারে।

কালারও ডাইনামিক রেঞ্জও ভালো।এটির  এআই বিউটি মোড ছবিকে আরও সুন্দর করে তুলবে। আছে নাইট মুড।রাতে স্বল্প আলোতেও ভালো ছবি তোলা যায়।

সেলফি ও ভিডিও চ‍্যাটের জন‍্য সামনে রয়েছে  এফ২.৩ অ‍্যাপাচারের ১৩ মেগাপিক্সেল ক‍্যামেরা। যা দিয়ে ১০৮০পি ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। সেলফি ছবির মান মোটামোটি ভালোই বলা যায়। দিনের আলোতে সেলফি ভালো মানের কালার ফুটে উঠে।

 

ব‍্যাটারি

ফোনটির সবচেয়ে আকষর্ণী একটি দিক হলো ব‍্যাটারি। একবার চার্জ দিলে স্বাভাবিক ব‍্যবহারের প্রায় ২ দিন অনায়াসে চলে যাবে। কেননা এতে রয়েছে ৫ হাজার মিলিঅ‍্যাম্পিয়ার ব‍্যাটারি। ০% থেকে চার্জ দিলে পূর্ণ চার্জ হতে সময় লাগে ২ ঘন্টা। এক কথায় ব‍্যাটারি ব‍্যাক অসাধারণ এই ফোনের। যাদের ফোনে বারবার ফোন চার্জে দিতে বিরক্ত লাগে তারা চোখ বন্ধ করে ফোনটি নিতে পারেন।

মূল‍্য

এক বছরের ওয়ারেন্টিসহ ডিভাইসটির মূল‍্য ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা।

বন্ধুদের জানিয়ে দেন
0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
1 Comment
Oldest
Newest Most Voted
Inline Feedbacks
View all comments
omar

আজকে একটা নোট নাইন ইন্ডিয়ান নিলাম ৪/৬৪ ১৪,৭০০৳
ধন্যবাদ ব্রো